এফিলিয়েট মার্কেটিং এ ভাল করার কিছু পদ্ধতি

আপনি ব্লগ বা ওয়েবসাইট পরিচালনা করছেন, সেখানে কারো বিজ্ঞাপনের লিংক ব্যবহার করছেন। যখনই কেউ সেই লিংক ব্যবহার করছে আপনার নামে টাকা জমা হচ্ছে। এটাই এফিলিয়েট মার্কেটিং। আপনি অন্যের প্রচারের কাজে সহায়তা করে অর্থ উপার্জন করছেন।

সাধারন কিছু নিয়ম মেনে আপনি এই কাজে ভাল ফল পেতে পারেন। এই পদ্ধতিগুলির সাথে ব্লগিং, মার্কেটিং, সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন কিংবা অন্য কোন বিষয়ের সম্পর্ক নেই। আপনার সাইটের ভেতরকার কিছু পরিবর্তন সম্পর্কিত। পদ্ধতিগুলি পরীক্ষিত সত্য কাজেই আপনিও কাজে লাগাতে পারেন।

.          ফন্ট সাইজ বড় রাখুন
আপনি এমন ভিজিটর আশা করছেন যাদের কাছে আপনার সাইটের বক্তব্য বেশি গুরুত্বপুর্ন না, বরং লিংকগুলি বেশি গুরুত্বপুর্ন। কাজেই তারা খুব আগ্রহ নিয়ে ছোট লেখা পড়বে এটা ধরে নেবেন না। ফন্ট সাইজ বড় রাখুন যেন সহজে পড়া যায়।
প্রতিটি লেখা যথেষ্ট বড় রাখুন যেন সহজে পড়া যায়।

.          বিনামুল্যে কিছু দিন
ওয়েবসাইটে স্কুইজ পেজ বলে একটি পেজ রাখা হয়। এখান থেকে ভিজিটরদের উপহার জাতিয় কিছু দেয়া হয়। আপনি বিনামুল্যে ডাউনলোডের জন্য কিছু রাখতে পারেন। লক্ষ করলে দেখবেন সেই পেজের ভিজিটর সবচেয়ে বেশি।

.          এবাভ দি ফোল্ড ব্যবহার করুন
এবাভ দি ফোল্ড বা ফোল্ডের ওপরে বলতে বুঝায় স্ক্রিনের নিচের দিকে না গিয়েই যা দেখা যায়। আপনার মুল বক্তব্য এমনভাবে রাখুন যেন ভিজিটরকে নিচের দিকে যেতে না হয়।

.          আকর্ষনীয়ভাবে লিখুন
আপনি যে বিষয়েই লিখুন না কেন, এমনভাবে লিখুন যেন ভিজিটর প্রতিটি শব্দ পড়তে আগ্রহি হন। কাজটি সহজ না একথা ঠিক। এজন্য বিভিন্ন জনপ্রিয় ব্লগের লেখা দেখে শিখতে পারেন। এক-কথায়, অল্প লিখুন, স্পষ্ট বক্তব্য লিখুন।

.          ভিজিটরের নাম বাদ দিন
কিছু ডাউনলোড করার সময় ভিজিটরের নাম লেখা বাধ্যতামুলক রাখবেন না। অনেকেই তাদের নাম সহজে ব্যবহার করতে চান না। এমনকি মন্তব্য লেখার যায়গায়ও। শুধুমাত্র ইমেইল দেয়ার ব্যবস্থা রাখুন। শুধুমাত্র নাম ব্যবহারের কারনেই ২০% ভিজিটর সেখানে আগ্রহি হন না।

.          আকর্ষনীয় বাটন তৈরী করুন
বাটনের জন্য আকর্ষনীয় শব্দ ব্যবহার করুন। ইনষ্ট্যান্ট এক্সেস, ইনষ্ট্যান্ট ডিজিটাল ডাউনলোড, ফ্রি এন্ট্রি এধরনের শব্দ মানুষ পছন্দ করে।

.          সবকিছুই সংক্ষিপ্ত রাখুন
অপ্রয়োজনীয় কিছু ওয়েবপেজে রাখবেন না। বিশেষ করে যেখানে ক্লিক করার যায়গা তার আশেপাশে অন্যকিছু দেখলে অনেক বিজিটরই ঘাবড়ে যান। ক্লিক করতে ইতস্তত করে। ভিজিটরকে নিশ্চয়তা দিন সেখানে ক্লিক করলে তার অজান্তে কিছু হবে না।

.          এফিলিয়েট লিংক গোপন করবেন না
এফিলিয়েট লিংককে এফিলিয়েট লিংক হিসেবে না দেখিয়ে অন্যভাবে দেখানোর কাজ করেন অনেকেই। বাস্তবতা হচ্ছে ভিজিটর যদি সেটা জানেন তাহলে ক্লিক করার সম্ভাবনা কম। বরং এফিলিয়েট লিংককে এফিলিয়েট লিংক হিসেবে উল্লেখ করুন। ভিজিটর জানবেন সেখানে ক্লিক করলে অন্তত তার ক্ষতি হচ্ছে না।

.          নিজের পরিচয় ব্যবহার করুন
এ বিষয়টিও বিতর্কিত। অনেকে বিভিন্ন কারনে নিজের পরিচয় প্রকাশ করেন না। সাধারনভাবে ভিজিটর ব্যক্তি সম্পর্কে নিশ্চিত হতে চান, অদৃশ্য ব্যক্তির সাথে লেনদেন পছন্দ করেন না। সম্ভব হলে নিজের পরিচিতি এবং ছবি ব্যবহার করুন।

.          নিজের অভিজ্ঞতা থেকে লিখুন
প্রত্যেকেই দুভাবে অভিজ্ঞতা লাভ করে, একটি নিজের প্রত্যক্ষ অপরটি অপর থেকে পরোক্ষ অভিজ্ঞতা। আপনি আপনার অভিজ্ঞতা থেকে অপরের পরোক্ষ অভিজ্ঞতা বাড়ানোর চেষ্টা করুন।

.          প্রশংসাপত্র ব্যবহার করুন
আপনার প্রতিস্ঠান সম্পর্কে কেউ যদি ভাল কিছু বলেন সেটা ওয়েবসাইটে রাখুন। এগুলি একধরনের প্রমান হিসেবে কাজ করে।

.          পাঠক আগে, ব্যবসা পরে
আপনি অর্থ উপার্জনের জন্য ব্লগ বা ওয়েবসাইট করেছেন। আপনার বক্তব্য কি সেটা আগে জানার সুযোগ দিন। ভিজিটর এগুলি থেকেই আকৃষ্ট হবেন। অর্থ উপার্জনের বিষয়টি পরের দিকে উল্লেখ করুন। ভিজিটর সাইট পছন্দ করলে একসময় নিজের আগ্রহেই ব্যবসার লিংকে যাবেন।

Sending
User Review
0 (0 votes)