২০২০ সালে বাজারে ২০ কোটি ফাইভজি ফোন!

ফোরজি ফোন ব্যবহারের দিন ফুরিয়ে আসছে। আগামী বছর ফাইভজি ফোন সরবরাহ হবে ২০ কোটির বেশি। এমনই ভবিষ্যদ্বাণী করেছেন, সিকিউরিটিজ রিসার্চের গুটাই জুনান। ফাইভজি স্মার্টফোনের ক্ষেত্রে আগামী বছরের মধ্যে বড় আকারের পরিবর্তন প্রত্যাশা করছেন তিনি। এই গবেষক মনে করেন, ফাইভজি স্মার্টফোন শিপমেন্ট আগামী বছরের ২০০ মিলিয়ন ছাড়িয়ে যাবে।

গুটাই জুনান এর আগে আরো কয়েকজন বিশ্লেষক জানিয়েছিলেন, ২০১৯ সালে ১ থেকে ২ কোটি ফাইভজি ফোন বাজারে সরবরাহ করা হবে। আগামী বছর এই সরবরাহের পরিমাণ বেড়ে দাঁড়াবে ১০ কোটি।

ফাইভজি খুব ধীর গতিতে এগোচ্ছে। তাই খুব অল্প পরিমান ফোনে ফাইভজি সুবিধা রয়েছে। তবে গ্রাহকদের পছন্দের তালিকায় ফাইভজি ফোন। তার প্রমাণ মিলেছে হুয়াওয়ের ফাইভজি ফোন বাজারে চালু করার পরই। হুয়াওয়ে মেট 20 এক্স ফাইভজি সংস্করণটি বাজারে আসার কয়েক মিনিটের মধ্যেই শেষ হয়ে যায়। এর বিক্রি ছাড়িয়েছে ১ মিলিয়ন। যা প্রত্যাশার চেয়েও বেশি। ফোনটির এত বিক্রির পরই গবেষকরা আগামী বছরের ফাইভজি ফোনের সরবরাহ নিয়ে মতামত দেন।

এইদিকে, ফাইভজি স্মার্টফোন সেপ্টেম্বর শেষ হওয়ার আগেই চীনা বাজারে প্রবেশ করবে। আইকিউও প্রো ফাইভজি সংস্করণটি পরের সপ্তাহে পৌঁছানো হবে এবং এটিই সবচেয়ে কমদামি ফাইভজি ফোন। বলা হচ্ছে, ফাইভজি ফোনটির দাম হবে ৬৫০ ডলারের আরো কম। যা ফোরজি স্মার্টফোনের থেকেও কম।

Sending
User Review
0 (0 votes)